উত্তরের প্রকৃতিতে শীতের আগমনী বার্তা

বার্তাজগৎ২৪ ডেস্ক:

প্রকাশিতঃ ১৭ অক্টোবর ২০১৯ সময়ঃ বিকেল ৪ঃ২৭
উত্তরের প্রকৃতিতে শীতের আগমনী বার্তা
উত্তরের প্রকৃতিতে শীতের আগমনী বার্তা

বার্তাজগৎ২৪ ডেস্ক:

শরৎকে বিদায় জানিয়ে হেমন্তের শুরুতেই প্রকৃতি জানান দিচ্ছে শীতের আগমনী বার্তা। ভোরে ঘাসের ওপর পড়ছে মুক্তার কণার মতো শিশির বিন্দু। বিকালে একটু আগে ভাগেই হেলে পড়ছে সূর্য। সন্ধ্যা নামার সঙ্গে সঙ্গে হিম ভাবের তীব্রতা যেন একটু বেড়েই যাচ্ছে। যদিও বাংলা বর্ষপঞ্জিকা অনুযায়ী, শীত আসতে দেরি আরও দুই মাস। তবে কার্তিকের প্রথম সপ্তাহে উত্তরের জেলাগুলোতে এমনই শীতের আবহ তৈরি হয়েছে। তবে আবহাওয়া অফিস বলছে, পৌষ না এলে নামবে না হাড়কাঁপানো শীত।

উত্তরের জেলা কুড়িগ্রামে প্রতি বছরের মত কার্তিকের শুরুতেই হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি নিয়ে আসছে শীতের আগমনী বার্তা। ইতিমধ্যে রোদের তাপমাত্রা দিনের বেলায় কমতে শুরু করেছে এখানে। তাই বিকাল হওয়ার সাথে সাথেই শীতের আবাস পাওয়া যায়। সন্ধ্যা থেকে ভোর হওয়া পর্যন্ত হালকা শীত অনুভব করা যায় উত্তরের এই জেলায়।

সাধারণত সূর্যের দক্ষিণায়নের কারণে নভেম্বর থেকে শীত অনুভূত হতে শুরু করে। তবে ডিসেম্বরের মাঝামাঝি থেকে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত শীতকাল বলে ধরা হয়। বাংলায় পঞ্জিকা অনুযায়ী পৌষ ও মাঘ এই দুইমাস শীতকাল। তবে এবার শীতের আগমনী বার্তা পাওয়া যাচ্ছে আরও আগে।

এদিকে প্রত্যন্ত অঞ্চলের নিম্ন আয়ের মানুষের শীতে একমাত্র অবলম্বন কাঁথা। তাই শীতের প্রকোপ থেকে বাঁচতে এসব পরিবারের নারী সদস্যরা এখন কাজের ফাঁকে তাদের পুরনো কাঁথা মেরামত করার পাশাপাশি পুরনো নতুন কাঁথা তৈরিতে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন।

আবার অনেকে চেয়ে আছেন শীতবস্ত্র পাওয়ার অপেক্ষায়। যদিও সবার ভাগ্যে তা জোটেনা। আর কৃষকরা অপেক্ষাকৃত উচুঁ জমিতে আবাদ করেছে শীতকালীন বিভিন্ন ধরনের শাক-সবজি। ইতিমধ্যে কৃষকদের এ শাক-সবজি হাট-বাজার গুলোতে উঠতে শুরু করেছে। বর্তমানে শীতের শাক-সবজির দামও বেশ ভাল। তাই হাসি ফুটেছে কৃষকদের মুখেও। 

বার্তাজগৎ২৪/ এম এ 

 

Share on: