কে এই ‘হিরো আলম’?

বার্তা জগৎ২৪ ডেস্ক

প্রকাশিতঃ ১৭ নভেম্বর ২০১৮ সময়ঃ সন্ধ্যা ৬ঃ৩৯
কে এই ‘হিরো আলম’?
কে এই ‘হিরো আলম’?

 

বগুড়ার সন্তান হিরো আলম ওরফে আশরাফুল আলম। বাংলাদেশের বগুড়ার এরুলিয়া গ্রামে তার জন্ম। ছেলেবলা কেটেছে বগুড়ার এরুলিয়াতেই। দরিদ্র পরিবারের সন্তান ছিলেন আলম। তিনি যখন ছোট, তখন অভাবের কারণে আশরাফুলের বাবা-মা গ্রামের অন্য এক পরিবারের হাতে ছেলেকে লালন-পালনের দায়িত্ব তুলে দেন। আশরাফুল আলমের পালক বাবা আব্দুর রজ্জাকও অবশ্য খুব ধনী ছিলেন না। সপ্তম শ্রেণি পর্যন্ত পড়ার পরে আর আলমের খরচ জোগাতে ব্যর্থ হন রাজ্জাক। এখানেই আলমের প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার সমাপ্তি। 

অর্থাভাব ঘুচাতে আলম মন দেন জীবিকা নির্বাহের দিকে। তখনই আলম শুরু করেন সিনেমা, গানের সিডির ব্যবসা সেই সঙ্গে যোগ করেন ডিশ টিভির ব্যবসাও।

নতুন ব্যবসায় ভালোই রোজগার করে আলম। স্বচ্ছলতার মুখ দেখেন আলম। ২০০৯ সালে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন পাশের গ্রামের সুমি নামের তরুণীর সঙ্গে। বর্তমানে ছেলে আবির ও মেয়ে আলোকে নিয়ে সুখের সংসার তার।

আলম যখন সিডির ব্যবসা করতেন, তখনই ভিডিও-তে দেখতেন মডেলদের কার্যকলাপ। সেই সময়েই মাথায় চেপে বসে মডেল হওয়ার বাসনা। তখন হাতে পয়সা ছিল না। কিন্তু পরে আর্থিক স্বচ্ছলতা আসার পরে নিজেই পয়সা খরচ করে ভিডিও তৈরি করে ফেসবুক আর ইউটিউবে ছড়িয়ে দেওয়া শুরু করেন। আলমের ভাষ্যমতে, ইউটিউবে প্রায় ৫০০ মিউজিক ভিডিও ছাড়ার পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ গণমাধ্যমে আলোচনায় আসেন হিরো আলম। ইউটিউবে প্রকাশ করা তাঁর নিজস্ব ভিডিওগুলোও পেয়ে যায় অনেক জনপ্রিয়তা। তৈরী ভিডিওগুলোর নির্দেশনাও দেন হিরো আলম নিজে। ভিডিওগুলোর মূল চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি। ইউটিউবে হিরো আলমের এসব ভিডিও ছড়িয়ে পড়লে দেশজুড়ে তাঁর ভিডিও নিয়ে কৌতুক শুরু হয়। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোয় তাঁর ভিডিও নিয়ে হয় ট্রল। তবে সবকিছু ছাপিয়ে তরুণ প্রজন্মের কাছে ব্যাপক পরিচিতি লাভ করেন তিনি।

স্যোসাল মিডিয়ায় তিনি যে ভীষণ জনপ্রিয় তার প্রমাণ হলো- ফেসবুকে রেকর্ড অনুসারীর ভিত্তিতে গুগলের তথ্য।

আলটিমেট ইন্ডিয়ার বরাত দিয়ে ইউএনবির খবরে বলা হয়েছে, বলিউড নায়ক সালমান খানের চেয়েও হিরো আলমকে গুগলে বেশিবার খোঁজা হয়েছে।এমন একটি তালিকাও করেছে ইয়াহু ইন্ডিয়া। জরিপে দেখা গেছে, ‘সুলতান’ ও ‘দাবাং’ তারকা খ্যাত সালমান খানকে পেছনে ফেলেছেন হিরো আলম। সালমানের চেয়েও বেশিবার খোঁজা হয়েছে হিরো আলমকে। এবার হিরো আলম সংসদ প্রার্থী হওয়ার ইচ্ছায় মনোনয়ন পত্র কিনেছেন। তিনি যদি এবার সংসদ সদস্য হয়ে মন্ত্রীও হন তবে অবাক হওয়ার কিছুই থাকবে না। কারণ তার হঠাৎ উত্থানই তাকে মনোবল যোগাচ্ছে।

 

বার্তাজগৎ২৪/ টি আই 

Share on: