মোসাদ্দেকের এক ওভারে ৬ বলে ৬টি ছক্কা মারতে চেয়েছিলেন রোহিত

বার্তাজগৎ২৪ ডেস্কঃ

প্রকাশিতঃ ৮ নভেম্বর ২০১৯ সময়ঃ দুপুর ২ঃ৪২
মোসাদ্দেকের এক ওভারে ৬ বলে ৬টি ছক্কা মারতে চেয়েছিলেন রোহিত
মোসাদ্দেকের এক ওভারে ৬ বলে ৬টি ছক্কা মারতে চেয়েছিলেন রোহিত

বার্তাজগৎ২৪ ডেস্কঃ

পূর্বাভাস ছিল রাজকোটে আছড়ে পড়বে সাইক্লোন ‘মহা’। তার দাপটে পণ্ড হয়ে যেতে পারে ম্যাচ, এমন আশঙ্কাও ছিল। শেষ পর্যন্ত ঝড় ওঠেনি। বৃষ্টিও নামেনি। কিন্তু, ব্যাট হাতে মহা-ঝড় তুললেন ‘হিটম্যান’। তাঁর ৪৩ বলে ৮৫ রানের ইনিংসে সাজানো ছিল ৬টি চার ও ৬টি ওভার বাউন্ডারি। ম্যাচের পর দলের লেগ স্পিনার যজুবেন্দ্র চাহালের সঞ্চালনায় চাহাল টিভি-তে রোহিত তাঁর এই ছক্কা হাঁকানোর মন্ত্র জানালেন রোহিত।

গতরাতে রাজকোটে বাংলাদেশের প্রায় সব বোলারই রোহিতের সামনে অসহায় ছিলেন। তবে সবচেয়ে বেশি তা টের পেয়েছেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। রোহিতের আগুনে পুড়ে এক ওভারেই ২১ রান দিয়েছেন তিনি। মোসাদ্দেক হোসেনও সম্ভবত এই ম্যাচটা সহজে ভুলবে না। বাংলাদেশের এই অফস্পিনারের পরপর তিন বলে তিন ছয় মারেন রোহিত।

ম্যাচের পর দলের লেগ স্পিনার যজুবেন্দ্র চাহালের সঞ্চালনায় চাহাল টিভি-তে রোহিত তাঁর এই ছক্কা হাঁকানোর মন্ত্র জানালেন রোহিত,

‘যখন আমি পরপর তিনটি ছয় মারলাম, তখন ছয়টি বড় শট খেলার চেষ্টা করি। কিন্তু চতুর্থ শট মিস হওয়ার পর আমি সিদ্ধান্ত নিই যে, সিঙ্গল নেব।’

রোহিত আরও বলেছেন,‘ বড় ছয় মারতে বড় চেহারা বা পেশীর প্রয়োজন নেই। তুমিও (চাহাল) ছয় হাঁকাতে পার। ছয় মারতে গেলে শুধু শক্তিই নয়, টাইমিংটাও ভালো করতে হয়। ব্যাটের মাঝখান দিয়ে খেলতে হয় এবং মাথা সোজা রাখতে হয়। তাই একটা ছক্কা হাঁকাতে গেল অনেকগুলি বিষয় একসঙ্গে সাজাতে হয়।‘

রাজকোটে একের পর এক ওভার বাউন্ডারি হাঁকিয়ে রোহিত কয়েকটি রেকর্ড গড়েছেন ও ভেঙেছেন। ভারতীয় অধিনায়ক হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে তে সবচেয়ে বেশি ছয় হাঁকানোর রেকর্ড এখন তাঁর দখলে। ১৭ ইনিংসে ৩৭ ছয় মেরে তিনি মাহেন্দ্র সিং ধোনিকে পেছনে ফেলেছেন। অধিনায়ক হিসেবে ৬২ ইনিংসে ধোনি মেরেছেন ৩৪ টি ওভার বাউন্ডারি। তালিকায় তৃতীয় স্থানে ভিরাট কোহলি। ২৬ ইনিংসে তাঁর ছয়ের সংখ্যা ৩৪।

২০১৯-এ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সব ধরনের ফরম্যাটে সবচেয়ে বেশি ওভার বাউন্ডারি মেরেছেন রোহিতই। তাঁর ছয়ের সংখ্যা ৬৬। ২০১৭ ও ২০১৮-তেও এই কৃতিত্বের মালিক ছিলেন তিনিই। ওই দুই বছর তিনি যথাক্রমে ৬৫ ও ৭৪ ওভার বাউন্ডারি হাঁকিয়েছিলেন।

বার্তাজগৎ২৪/এসএইচ

Share on: