রোহিঙ্গাদের গণহত্যা দিবসের সমাবেশে স্বদেশে ফেরার আকুতি

বার্তা‌জগৎ২৪ ডেস্কঃ

প্রকাশিতঃ ২৫ অগাস্ট ২০১৯ সময়ঃ সন্ধ্যা ৬ঃ২৫
রোহিঙ্গাদের গণহত্যা দিবসের সমাবেশে স্বদেশে ফেরার আকুতি
রোহিঙ্গাদের গণহত্যা দিবসের সমাবেশে স্বদেশে ফেরার আকুতি

দিদার, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

বর্তমান সময়ে বাংলাদেশে শরণার্থী হিসেবে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গারা দেশের জন্য সবচেয়ে বড় গলার কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছে। মিয়ানমারে সেনাবাহিনীদের নির্যাতনের শিকার হয় নিজেরা বাংলাদেশে এসে আশ্রয় নিলেও এখানে এসে জড়িয়ে পড়ছে নানা রকমের অনৈতিক কাজে। এমনকি বর্তমানে বাংলাদেশের স্থানীয় নাগরিকরাও হত্যার শিকার হচ্ছে রোহিঙ্গাদের হাতে। 

আজ রবিবার কক্সবাজারের উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে রোহিঙ্গারা গণহত্যা দিবস পালন করেছে। সকাল ৯ টার দিকে উখিয়ার মধুরছড়া এক্সটেনশন-৪ রোহিঙ্গা ক্যাম্পের খোলা মাঠে সমাবেশের মাধ্যমে এই দিবস পালন করে তারা। রাখাইনে ভয়াবহ সহিংসতার ঘটনার দ্বিতীয় বছর পূর্তি উপলক্ষে রোহিঙ্গারা এই দিবস পালন করেছে বলে জানা গেছে। সমাবেশে লাখ লাখ রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ ও শিশুরা উপস্থিত ছিলেন।

গণহত্যা দিবসের সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, আরাকান রোহিঙ্গা সোসাইটি ফর পিস অ্যান্ড হিউম্যান রাইটস’র চেয়ারম্যান মুহিব উল্লাহ, মাস্টার আবদুর রহিম, মৌলভী ছৈয়দ উল্লাহ ও রোহিঙ্গা নারী নেত্রী হামিদা বেগম সহ আরো অনেকে।  

সমাবেশে রোহিঙ্গা নেতারা গত ২০১৭ সালে মিয়ানমারের রাখাইনে গণহত্যা, ধর্ষণসহ বর্বর নির্যাতনের নিন্দা জানানোর পাশাপাশি জড়িত সেনাবাহিনী ও উগ্রপন্থী মগদের আন্তর্জাতিক আদালতে বিচারের দাবি জানিয়েছেন।একই সাথে তারা নিজেদের স্বদেশে ফেরার আকুতি জানিয়ে আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর পাশাপাশি সংবাদমাধ্যমের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

রোহিঙ্গা নেতারা বিশ্ববাসীকে রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারের নাগরিক মর্যাদাসহ দাবিকৃত ৫টি শর্ত মেনে নেয়ার জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে মিয়ানমার সরকারকে জোরালোভাবে চাপ দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।  

এজন্য বর্তমান সময়ে চলে আসা মিয়ানমার সরকারের সাথে রোহিঙ্গাদের চলমান সংলাপ অব্যাহত রাখার ব্যাপারেও প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। সমাবেশ শেষে তারা আল্লাহ দরবারে বিশেষ মোনাজাতের মাধ্যমে নিজেদের স্থায়ী বাসস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হওয়ার জন্য দোয়া করেন।

সমাবেশ শুরু হওয়ার আগে সকাল থেকে দলে দলে বিভিন্ন ব্যানার, ফেস্টুন ও নানা স্লোগান নিয়ে সমাবেশে যোগদান করতে দেখা গেছে রোহিঙ্গাদেরকে। সমাবেশে নানা রকম স্লোগানে মুখরিত ছিল পুরো রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকা।

অপরদিকে উখিয়ার কুতুপালং, বালুখালী, টেকনাফের উনচিপ্রাংসহ বিভিন্ন রোহিঙ্গা ক্যাম্পেও রাখাইনে সংগঠিত বর্বরোচিত গণহত্যার বিচারের দাবিতে সমাবেশ হয়েছে। উক্ত সমাবেশ গুলোতেও রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব এবং ভিটেমাটি ফিরিয়ে দিয়ে পুনরায় প্রত্যাবাসন করার দাবি জানিয়েছেন রোহিঙ্গা নেতারা।

বার্তা‌জগৎ২৪.কম/এফ এইচ পি