৮২ শতাংশ ভোট পেয়েও সাকিবকে পুরস্কার থেকে বঞ্চিত করলেন ভারত আর্মি

বার্তাজগৎ২৪ ডেস্ক:

প্রকাশিতঃ ৬ ডিসেম্বর ২০১৯ সময়ঃ দুপুর ১ঃ৫৯
৮২ শতাংশ ভোট পেয়েও সাকিবকে পুরস্কার থেকে বঞ্চিত করলেন ভারত আর্মি
৮২ শতাংশ ভোট পেয়েও সাকিবকে পুরস্কার থেকে বঞ্চিত করলেন ভারত আর্মি

দিদারুল ইসলাম:

সারা বিশ্বজুড়ে যার কোটি কোটি ভক্ত এমনকি বাংলাদেশের মতো কম টেস্ট ম্যাচ খেলা একটি দেশের হয়েও ওয়ানডে ক্রিকেটের পাশাপাশি শীর্ষ টেস্ট অলরাউন্ডার হওয়ার গৌরব অর্জন করেছিলেন সাকিব আল হাসান। শুধু দেশের ক্রিকেটে নয় বরং আইপিএলে অংশগ্রহণ করেও কলকাতা এবং সানরাইজার হায়দ্রাবাদের হয়ে শিরোপা জিতিয়েছেন তিনি।

২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপে ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং—সব বিভাগেই দুর্দান্ত পারফর্ম করেছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের উজ্জ্বল এই নক্ষত্র।পারফরম্যান্স দিয়ে গোটা ক্রিকেট বিশ্বকে নিজের শ্রেষ্ঠত্বের প্রমাণ দিয়েছেন বহুবার। সাকিব ২০১৯ বিশ্বকাপে ৮ ম্যাচ খেলে দুটি শতক ও ৫টি অর্ধশতকের সাহায্যে মোট ৬০৬ রান করার পাশাপাশি বল হাতে ৮ ম্যাচে ১১টি উইকেট শিকার করার পরেও শুধুমাত্র দলীয় ব্যর্থতার কারণে টুর্নামেন্ট সেরা পুরস্কার থেকে বঞ্চিত হয়েছেন।

বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ঠিক পরেই ম্যাচ ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পাওয়ার পরেও বিষয়টি আইসিসি’র দুর্নীতি দমন ইউনিটকে না জানিয়ে গোপন করার অপরাধে এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়ে পড়েছেন সাকিব।এরপরেও ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের অসাধারণ পারফরম্যান্সের কারণে ভারতীয় ক্রিকেটের সমর্থকদের বৃহত্তম গোষ্ঠী ভারত আর্মির পক্ষ থেকে আন্তর্জাতিক বর্ষসেরা পুরুষ খেলোয়াড় ক্যাটাগরিতে মনোনয়ন পান সাকিব।

বর্ষসেরা নির্বাচনের জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে একটি পোলের আয়োজন করে ভারত আর্মি। সেখানে সাকিবের সঙ্গে আরো জায়গা পান ইংল্যান্ডের বেন স্টোকস, অস্ট্রেলিয়ার স্টিভ স্মিথ ও নিউজিল্যান্ডের কেন উইলিয়ামসন। তাদের নিয়ম অনুযায়ী ভারত আর্মি প্রতি বছরই ক্রিকেট সমর্থকদের ভোটে বছরের সেরা খেলোয়াড়কে এই সম্মানী অ্যাওয়ার্ড প্রদান করে থাকেন।

গতকাল বৃহষ্পতিবার টুইটারের পোল পোস্টের মাধ্যমে নির্বাচিত বিজয়ীর নাম প্রকাশ করা হয়। প্রতিযোগিতায় সাকিব আল হাসান ৮২ শতাংশ ভোট পাওয়ার পরেও বিজয়ী হিসেবে ঘোষণা করা হয় বেন স্টোকসের নাম!

তথ্য অনুযায়ী পোল শেষে সাকিব আল হাসান একাই ৮২ শতাংশ ভোট পেয়েছিলেন, দ্বিতীয় স্থানে থাকা বেন স্টোকস পেয়েছিলেন মাত্র ৮ শতাংশ ভোট। এছাড়া কেন উইলিয়ামসন ৬ শতাংশ এবং স্টিভ স্মিথ পান ৪ শতাংশ ভোট। 

ভারত আর্মির এহেন স্বেচ্ছাচারী সিদ্ধান্তে বেজায় চটেছেন ক্রিকেটভক্তরা। টুইটারে এটাকে ইতিহাসের জঘন্যতম প্রতারণা হিসেবেই অভিহিত করছেন অনেকেই। ক্ষুব্ধ ভক্তরা রীতিমতো তোপের মুখে ফেলেছে ভারতীয় আর্মিকে তাদের ভাষ্য, ভারত আর্মিই যদি সেরা খেলোয়াড় নির্বাচন করবে তাহলে পোলের নামে এইসব তামাশার কী দরকার ছিলো! বরং পোলের মাধ্যমে ভোটের আয়োজন না করে গোপনে তারা তাদের পছন্দের খেলোয়াড় কে চাইলে পুরস্কার তুলে দিতে পারতো।এটি শুধুমাত্র একজন খেলোয়াড়ের প্রতি অমানবিক আচরণ নয় ক্রিকেট ভক্তদের সাথে চরম প্রতারণা এবং মিথ্যাচার।

বার্তাজগৎ২৪/ এম এ 

 

Share on: