• বৃহস্পতিবার, ৬ মে ২০২১ , ২৩ বৈশাখ ১৪২৮
  • আর্কাইভ

বৃহস্পতিবার, ৬ মে ২০২১ , ২৩ বৈশাখ ১৪২৮

জয় শ্রীরাম না বলায় এক কিশোরকে ব্যাপক মারধর

বার্তাজগৎ২৪ ডেস্ক
প্রকাশিত :মঙ্গলবার, এপ্রিল ২০, ২০২১, ১০:৩১

  • জয় শ্রীরাম না বলায় ৯ বছরের এক কিশোরকে মারধর করেছে এক বিজেপি কর্মী

    জয় শ্রীরাম না বলায় ৯ বছরের এক কিশোরকে মারধর করেছে এক বিজেপি কর্মী। গতকাল (১৯ এপ্রিল) সোমবার দুপুরে ভারতের শান্তিপুর থানার ফুলিয়ার এই ঘটনা ঘটে। মারধরের শিকার ওই কিশোর বর্তমানে রানাঘাট মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। 


    এর প্রতিবাদে এদিন দুপুরে ফুলিয়া পাড়া এলাকায় ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। ফলে জাতীয় সড়কে ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়। ঘটনার পর থেকেই অভিযুক্ত মহাদেব প্রামাণিক পলাতক রয়েছেন বলে জানিয়েছেন পুলিশ।

    পুলিশ আরও জানিয়েছে, পরিস্থিতি বর্তমানে স্বাভাবিক রয়েছে। অভিযুক্ত ব্যাক্তির খোঁজে কাজ করছে পুলিশ।

    ভোট পরবর্তী এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শাসক-বিরোধী রাজনৈতিক দলের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে।

    জানা যায়, মারধরের শিকার ওই কিশোর ফুলিয়াপাড়া এলাকার বাসিন্দা। বেশ বছর আগে তার মায়ের মৃত্যু হয়। বাবা মানসিকভাবে অসুস্থ। স্থানীয় ব্যবসায়ী ও প্রতিবেশীদের সাহায্যের টাকায় তার দিন চলে। এদিন দুপুরে ওই কিশোর অভিযুক্ত বিজেপি কর্মীর চায়ের দোকানে গিয়েছিল। তখন ওই বিজেপি কর্মী তাকে জয় শ্রীরাম বলতে বলে। 

     

    আরো পড়ুন -

    ১.সরকার ধর্মীয় নেতাকে গ্রেফতার করছে না, দুষ্কৃতিকারীদের গ্রেফতার করছে

    ২.সৌদির ১০ বিলিয়ন গাছ লাগানো প্রকল্পে বাংলাদেশি জনশক্তি নেওয়ার প্রস্তাব

     


    প্রত্যক্ষদর্শী বাবলু কুণ্ডু বলেন, অসহায় ওই কিশোর সকাল-সন্ধ্যা এলাকাতেই ঘুরে বেড়ায়। স্থানীয়রাই তার দেখাশোনা করে। চায়ের দোকানে থাকা বিজেপি কর্মী মহাদেব তাকে জয় শ্রীরাম বলতে জোর করেন। কিন্তু ছেলেটি তা না বলায় তাকে ব্যাপক মারধর করা হয়। আমরা এ ঘটনার ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। এই ধরনের ঘটনা কখনোই কাম্য নয়। আহত কিশোরকে স্থানীয়রাই প্রথমে শান্তিপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। পরে খবর পেয়ে হাসপাতালে আসেন তৃণমূলের যুবনেতা শুভঙ্কর মুখোপাধ্যায়। 

    তিনি বলেন, বিজেপির হিংসার হাত থেকে রক্ষা পায়নি ছোট্ট ছেলেটি। জয় শ্রীরাম না বলার কারণে যে এভাবে মারধর করা হবে যা কল্পনা করা যায় না।

    এদিকে বিজেপির নদীয়া দক্ষিণ সাংগঠনিক জেলার এসসি মোর্চা সাধারণ সম্পাদক অঙ্কন সরকার বলেন, ওই ঘটনাকে কোনোভাবেই সমর্থন করি না। তবে অভিযুক্ত ব্যাক্তি আমাদের দলের কোনও নেতা বা কর্মী নন। অভিযুক্তের স্ত্রী মিঠু প্রামাণিক বিজেপির ২৯ নম্বর মহিলা মোর্চার সভাপতি। তিনি বলেন, এদিন দুপুরে স্বামী বাড়ি এসে জানায়, ওই ছেলেটি দোকানে গিয়ে জয় বাংলা বলতে বলেছিল। এরপরই সে দোকান লক্ষ্য করে ইট ও পাথর ছুড়তে থাকে। তখন অভিযুক্ত স্বামী কিশোরকে একটি চড় মারে।

    /আবুল বাশার

    • সর্বশেষ
    • সর্বাধিক পঠিত
    শনি
    রোব
    সোম
    মঙ্গল
    বুধ
    বৃহ
    শুক্র

    সম্পাদক: দিদারুল ইসলাম
    প্রকাশক: আজিজুর রহমান মোল্লা
    মোবাইল নাম্বার: 01711121726
    Email: bartajogot24@gmail.com & info@bartajogot24.com