• মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১ , ১১ শ্রাবণ ১৪২৮
  • আর্কাইভ

মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১ , ১১ শ্রাবণ ১৪২৮

কানাডায় ধর্মীয় বিদ্বেষ: মুসলিম পরিবারের চার সদস্যকে হত্যা

সারাবিশ্ব ডেস্কঃ
প্রকাশিত :মঙ্গলবার, জুন ৮, ২০২১, ১০:৩৭

কানাডায় ধর্মীয় বিদ্বেষের শিকার মুসলিম পরিবার । সংগৃহীত ছবি

যুক্তরাষ্ট্রের পর এবার কানাডাতেও ছড়িয়ে পড়েছে ধর্মীয় বিদ্বেষ। দেশটির ওন্টারিওতে একটি মুসলিম পরিবারের ওপর ট্রাক চালিয়ে দিয়েছে একজন চালক। এঘটনায় ৫ জনের মধ্যে ঘটনাস্থলেই ওই মুসলিম পরিবারের ৪ সদস্য নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে ৭৪ ও ৪৪ বছর বয়সী ২জন নারী, ১৫ বছরের এক কিশোরীসহ ৪৬ বছরের এক ব্যক্তি। বেঁচে ফিরেছেন নয় বছর বয়সী এক শিশু। এটিকে পরিকল্পিত ও ইসলাম-বিদ্বেষী ঘটনা বলে আখ্যা দিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় আটক করা হয়েছে সন্দেহভাজন হামলাকারীকে। এ ঘটনায় শোক প্রকাশ করে ধর্মীয় বিদ্বেষের মূলোৎপাটনের ঘোষণা দিয়েছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো।


 

স্থানীয় সময় রোববার (০৬ জুন) কানাডার অন্টারিও প্রদেশের লন্ডন শহরে এ ঘটনা ঘটে।

 

জানা যায়, আহত হয়েছেন এক শিশু, তার অবস্থা গুরুতর তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হতাহতদের সবাই মুসলিম। তাদের ওপর পূর্ব পরিকল্পিতভাবে হামলা চালানো হয়েছে।

 

এ ঘটনায় ২০ বছর বয়সী এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে ঘটনাস্থলের ছয় কিলোমিটার দূরের শপিংমল থেকে। তার বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তার নাম নাথানিয়েল ভেল্টম্যান। তিনি কানাডার নাগরিক। পূর্বপরিকল্পিতভাবে তিনি এ হামলাটি চালিয়েছেন। যাকে হেইট ক্রাইম বা বিদ্বেষমূলক অপরাধ হিসেবে দেখছেন অনেকে।তবে হামলাকারী কোন হেইট গুপের সদস্য কিনা তা এখনো পর্যন্ত নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

 

আরও পড়ুন- 

১-পাকিস্তানে ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনা, নিহত ৩০

২- বৈধ কাগজ না থাকায় মালয়েশিয়ায় ৬২ বাংলাদেশি গ্রেপ্তার, পাসপোর্ট জটিলতায় প্রবাসীরা

৩- মহাখালীর সাততলা বস্তিতে ভয়াবহ আগুন, শত শত ঘর পুড়ে ছাই!

৪- জাতিসংঘের সহ-সভাপতি নির্বাচিত বাংলাদেশ

৫-বিশ্বে আবারও বেড়েছে করোনায় মৃতের সংখ্যা

 

লন্ডন পুলিশ বিভাগের প্রধান কর্মকর্তা স্টেফেন উইলিয়ামস বলেন, খবর পেয়েই স্থানীয় পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। তারা তড়িৎ ব্যবস্থা নিয়েছে। ইতোমধ্যে তদন্ত শুরু হয়েছে। নিহতদের সবাই মুসলিম ও তাদের হত্যা করা হয়েছে, ধর্মীয় বিদ্বেষের কারণে।

 


এ ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, গতকালের ঘৃণিত ঘটনায় যাঁরা প্রিয়জনদের হারিয়েছেন, আমরা তাঁদের পাশে আছি। ইসলামোফোবিয়া বা ইসলাম-বিদ্বেষের কোনো স্থান নেই তার দেশে। যে কোনো মূল্যে এই সংকট সমাধান করা হবে।

 

এর আগে, কুইবেক প্রদেশে ২০১৭ সালে মসজিদে বন্দুক হামলার ঘটনা ঘটে। এতে প্রাণ হারান ছয়জন, আহত হয়েছিলেন বেশ কয়েকজন। সম্প্রতি ভ্যানকুভার বিমানবন্দরে বন্দুকধারীর গুলিতে একজন নিহত হন।

/এস এ. আকাশ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র

সম্পাদক: দিদারুল ইসলাম
প্রকাশক: আজিজুর রহমান মোল্লা
মোবাইল নাম্বার: 01711121726
Email: bartajogot24@gmail.com & info@bartajogot24.com