• মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১ , ১১ শ্রাবণ ১৪২৮
  • আর্কাইভ

মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১ , ১১ শ্রাবণ ১৪২৮

গুজব ও অপপ্রচার রোধে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার প্রত্যয় আ. লীগের নেতৃবৃন্দের

বার্তাজগৎ২৪ডেস্ক
প্রকাশিত :মঙ্গলবার, জুলাই ১৩, ২০২১, ১১:০৫

গুজব ও অপপ্রচার রোধে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার প্রত্যয় আ. লীগের নেতৃবৃন্দের

আজ বিকাল ৩:৩০ মিনিটে  ভিডিও কনফারেন্সে (Zoom) বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দপ্তর ও উপ-দপ্তর সম্পাদকের সাথে ঢাকা  বিভাগের সাংগঠনিক ৮টি জেলার( গোপালগঞ্জ, ফরিদপুর, মাদারীপুর, শরীয়তপুর, রাজবাড়ী, মানিকগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ মহানগর, নারায়ণগঞ্জ ও নরসিংদী) দপ্তর ও উপ-দপ্তর সম্পাদকদের এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দপ্তর বিভাগ থেকে ধাপে ধাপে ৮টি বিভাগের জেলাসমূহের দপ্তর ও উপ-দপ্তর সম্পাদকদের সাথে এই সভার আয়োজন করা হয়েছে। ঢাকা বিভাগে সাংগঠনিক জেলা ১৭টি। ধারাবাহিকভাবে আয়োজিত সকল সভার সর্বশেষ সভা ছিল এটি এবং ঢাকা বিভাগের ২য় সভা। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কাজের ব্যবস্থাপনায়  তথ্য ও প্রযুক্তির ব্যবহার নিয়ে আলোচনা করা হয়। সভার উদ্দেশ্য হল- সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সকল নেতাকর্মীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা এবং দলীয় প্রচার-প্রচারণা জোরদার করা, তৃণমূল পর্যায়ের সকল কর্মকাণ্ড কীভাবে তুলে ধরা যায় এবং বিরোধী পক্ষের অপপ্রচার ও পাল্টা জবাব দেওয়া। ২০০৮ সালে ক্ষমতাসীন হওয়ার পর  মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের পরামর্শে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলার অঙ্গীকার করেন। যার ফলশ্রুতিতে বাংলাদেশ ডিজিটাল বাংলাদেশে রূপান্তরিত হয়েছে।


 

 

সভায় সূচনা বক্তব্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের  দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া বক্তব্যে বলেন, করোনা মহামারির মধ্যে আমরা গত ২৩ জুন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করেছি। করোনার কারণে আমাদের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড কিছুটা স্থবির হয়ে পড়েছে। তবে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের ফলে আমরা তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে দলীয় কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছি।

 

 

তিনি আরও বলেন, করোনা মহামারির মধ্যে দলীয় সভাপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনা এমপি তাঁর সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নিয়মিতভাবে দলীয় ও সরকারি কর্মসূচিতে নিয়মিত অংশগ্রহণ করেন। লকডাউনে ক্ষতিগ্রস্ত নিম্ন আয়ের মানুষের সহায়তায় আজ জননেত্রী শেখ হাসিনা ৩ হাজার ২ শত কোটি ৫টি প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন।

 

 

এরপর বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান।

 

আওয়ামী লীগের গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর রিসার্চ এন্ড ইনফরমেশন (সি আর আই)-এর পক্ষ থেকে সভা পরিচালনায় কারিগরি সহায়তা প্রদান করা হয়। সি আর আই এর পক্ষ থেকে প্রতিষ্ঠানটির কো-অর্ডিনেটর  তন্ময় আহমেদ ও শুভ সাহা এবং ডাটাবেইজ টিমের সদস্য নুরুল আলম পাঠান মিলন  ও  জাফরুল শাহরিয়ার জুয়েল সভায় সংযুক্ত ছিলেন। এছাড়া সভায় ঢাকা বিভাগের ৮টি জেলার সংযুক্ত দপ্তর ও উপ-দপ্তর সম্পাদকবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। 


 

 

সভায় বক্তারা বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ শুধুমাত্র রাজনৈতিক প্রপঞ্চ বা কথার কথা নয়। এটি একটি রাজনৈতিক দর্শন। যে দর্শন প্রতিষ্ঠায় জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কাজ করে যাচ্ছে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে সময়ের প্রেক্ষাপটে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা ২০০৮ সালে 'ডিজিটাল বাংলাদেশ'-এর লক্ষ্যমাত্রা ঘোষণা করেন। ১৯৭৫ সালের ১৪ জুন বঙ্গবন্ধু বেতবুনিয়া ভূ-উপগ্রহ কেন্দ্র চালু করেন। ১৯৯৮-৯৯ সালের বাজেটে কম্পিউটারের উপর শুল্ক ও ভ্যাট প্রত্যাহার করে শেখ হাসিনা সরকার। একই সাথে ১৯৯৭ সালে মোবাইল কোম্পানির মনোপলি ভেঙে দেওয়া হয় এবং সেই সরকারের আমলেই  ইন্টারনেট চালু হয়। জননেত্রী শেখ হাসিনা সেই সময় বছরে ১০ হাজার প্রোগ্রামার তৈরির নির্দেশনা প্রদান করেন এবং ১৯৯৭ সালে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের উদ্যোগ গ্রহণ করেন। সভায় বক্তারা তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিরোধী পক্ষের গুজব ও অপপ্রচার রোধে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

/শাকিল মেহেরাজ হোসেন

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র

সম্পাদক: দিদারুল ইসলাম
প্রকাশক: আজিজুর রহমান মোল্লা
মোবাইল নাম্বার: 01711121726
Email: bartajogot24@gmail.com & info@bartajogot24.com