• শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১ , ৩ বৈশাখ ১৪২৮
  • আর্কাইভ

শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১ , ৩ বৈশাখ ১৪২৮

বাতাসে চার্জ হবে মোবাইল ফোন

তাসনুভা লিজা
প্রকাশিত : বুধবার, ০৩ ফেরুয়ারী, ২০২১, ০১:৪২

  • বাতাসে চার্জ হবে মোবাইল ফোন

    প্রযুক্তির বিস্ময়কর আবিষ্কার মোবাইল ফোন, তবে সেই মোবাইল ফোনের চার্জও থাকে একটা নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত। চার্জ শেষ হয়ে গেলে চার্জ দেয়ার রয়েছে বিভিন্ন মাধ্যম। সাধারণত কেবল চার্জারের মাধ্যমে মোবাইল ফোন চার্জ করা হয়, আবার পোর্টেবল চার্জার, পাওয়ার ব্যাংক, এমনকি বিভিন্ন সফটওয়ার এপ্লিকেশনও আছে মোবাইল চার্জ করার জন্য। তবে মানুষের চাহিদার সাথে সাথে প্রযুক্তিগত পরিবর্তন এখন এমন এক পর্যায়ে যেন মানুষের স্বপ্নকেও সত্যি করে তুলছে।

    তেমনি এক আবিষ্কার শাওমি কোম্পানির এয়ার চার্জার। জানুয়ারি মাসের ২৯ তারিখে এমনি ঘোষণা দিয়েছে চীনা এই কোম্পানি। এই টেকনোলজিতে থাকবে না কোনো কেবল চার্জার অথবা চার্জিং স্ট্যান্ড। শুধু একটি ট্রান্সমিটার ডিভাইস থাকবে যেটার সাইজ অনেকটা ছোট্ট টুলের মতো। এই ট্রান্সমিটার ডিভাইস থেকে আশেপাশের একাধিক ডিভাইস চার্জ হতে পারবে।

    কেবল ছাড়া ডিভাইসের থেকে দূরে এমন চার্জিং সিস্টেমকে বলে “রিমোট চার্জিং”। এই টেকনোলজিতে স্মার্টফোনে ৫ ওয়াটের চার্জ প্রোভাইট করতে পারবে।


    এই ডিভাইসটি এমন ভাবে ব্যবহার করা যাবে যে একটা ঘরে ডিভাইসটি রাখলে একাধিক মানুষ তাদের মোবাইল ফোন চার্জ করতে পারবে। কেউ হয়তো গেম খেলছে, কেউ হয়তো কাজ করছে, কিন্তু চার্জ পাবে সেই ঘরের প্রত্যেকটি ডিভাইস।

    শাওমির এই সিস্টেমের কোর-টেকনোলজি স্পেস পজিশনিং এবং এনার্জি ট্রান্সমিশনের উপর ভিত্তি করে গড়ে তোলা। এই ডিভাইসে পাঁচটি ফেজের বিল্ট-ইন এন্টেনা আছে যা অন্যান্য ডিভাইসকে ডিটেক্ট করে চার্জ করে। একটি আছে বিল্ট-ইন “বিকন এন্টেনা” যা চার্জ প্রদান করে, আরেকটি হলো “রিসিভিং এন্টেনা” যা চার্জ গ্রহণ করে। এই রিসিভিং এন্টেনাতে আছে ১৪টি এন্টেনা অ্যারে যা মিলিমিটার রেঞ্জের তরঙ্গ কে বৈদ্যুতিক সিগনালে পরিণত করতে পারে। এই দুইয়ের সমন্বয়েই মোবাইল চার্জ হয়ে থাকে।

    নিঃসন্দেহে এই টেকনোলজি একটি যুগান্তকারী পরিবর্তন যা বাস্তবকে করে তুলবে কল্পবিজ্ঞানের মতো।

    প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, শাওমি চীনের একটি করপোরেশন যা ২০১০ সালে লি জুন প্রতিষ্ঠা করেন। শুধু স্মার্টফোন নয়, বরং বিভিন্ন ধরনের ইলেকট্রনিক ডিভাইস, টেলিভিশন, ব্যাগ, জুতা সহ নানা ধরনের পণ্য উৎপাদন করে থাকে। শাওমি করপোরেশন হলো ফরচুন গ্লোবালে ৫০০ এর মধ্যে জায়গা করে নেয়া কনিষ্ঠতম সদস্য। এমনকি ২০১৫ তে একটি ফেস্টিভ্যালে স্মার্টফোন বিক্রির ক্ষেত্রে ২৪ ঘন্টায় একক অনলাইন প্লাটফর্মে সবচেয়ে বেশি ফোন বিক্রি করে গিনেস বুক রেকর্ডও করে ফেলে শাওমি করপোরেশন।

    • সর্বশেষ
    • সর্বাধিক পঠিত
    শনি
    রোব
    সোম
    মঙ্গল
    বুধ
    বৃহ
    শুক্র

    সম্পাদক: দিদারুল ইসলাম
    প্রকাশক: আজিজুর রহমান মোল্লা
    মোবাইল নাম্বার: 01711121726
    Email: bartajogot24@gmail.com & info@bartajogot24.com