• বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১ , ১ বৈশাখ ১৪২৮
  • আর্কাইভ

বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১ , ১ বৈশাখ ১৪২৮

দীর্ঘ ১০ বছর ধরে বন্ধ ঢাবির সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের শিক্ষক নিয়োগ

বার্তাজগৎ২৪ ডেস্ক:
প্রকাশিত :বুধবার, মার্চ ১৭, ২০২১, ১০:১২

  • ফাইল ফটো

    ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের প্রভাষক নিয়োগ দীর্ঘ ৮-১০ বছর ধরে বন্ধ। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও ইনস্টিটিউটের বর্তমান পরিচালকের নানা উদ্যোগ ও বারবার অনুরোধের পরও বিজ্ঞাপনের জন্য ইনস্টিটিউটের সিএনডি কমিটি থেকে কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। ইনস্টিটিউটের বর্তমান পরিচালকের প্রচেষ্টায় সিএনডি সভায় নিয়োগ এজেন্ডা দেওয়া হলেও তা জামাতপন্থী সদস্যদের দ্বারা বারবার বাতিল হয়। জামাতপন্থী সিএনডি সদস্যদের বিরুদ্ধে নানাবিধ অভিযোগ রয়েছে। তার প্রকাশ্যই বলে বেড়ান- "জামাত- বিএনপি জোট ক্ষমতায় আসার পরই সমাজকল্যাণ ইনস্টিটিউটে শিক্ষক নিয়োগ হবে, তার আগে নয়"। দীর্ঘ সময় নিয়োগ বন্ধ থাকায় এই গবেষণা ইনস্টিটিউট এখন প্রভাষক শূন্য। গবেষণা প্রতিষ্ঠান এইভাবে প্রভাষক শূন্য থাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিধিবিধান ও শিক্ষক কাঠামোর সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। এই ধরনের অনিয়ম ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বিধিমালা পরিপন্থী কর্মকাণ্ডের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয়ের চূড়ান্ত নীতিনির্ধারক বডি সিন্ডিকেট সভায় ২৮/১২/২০২০ তারিখে উত্থাপন করেন এবং উক্ত সভায় সর্ব-সম্মতিক্রমে নিয়োগের জন্য রেজুলেশন পাশ হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেট বিশ্ববিদ্যালয় চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার ক্ষমতা সম্পন্ন সভা। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রয়োজনে এই সভা যে কোন আইনসিদ্ধ সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতা রাখে এবং এই সভায় উপাচার্য মহোদয় ও দুই জন উপ-উপাচার্য অন্যতম সদস্য হিসেবে উপস্থিত থাকেন। সিন্ডকেট পাশকৃত রেজুলেশন অনুযায়ী সকল নিয়ম মেনে গত ২২/০১/২০২১ তারিখে দৈনিক কালেরকন্ঠ ও ডেইলি অবজারভার পত্রিকাতে দুই জন প্রভাষক এর জন্য বিজ্ঞাপন প্রকাশিত হয়। আবেদন জমার মেয়াদ শেষ হয় ১১/০২/২০২১ তারিখে। পদ শূন্য থাকায় পরবর্তীতে দুইটি পদের সাথে আরও একটি পদের জন্য সিএনডি সভা সুপারিশ করে। উক্ত সিএনডি সভায় আবেদন জমাদানকারী ৪১ জন্য প্রার্থীর কাগজ যাচাই-বাছাই করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম অনুযায়ী সি এন্ড ডি সভা গঠিত হবে মোট শিক্ষকের তিন ভাগের এক ভাগ সদস্য দ্বারা। সমাজকল্যাণ ইনস্টিটিউটে সি এন্ড ডি কমিটি ছয় জন সদস্য দ্বারা গঠিত। সিএনডি সদস্যের মধ্যে এক তৃতীয়াংশ উপস্থিত থাকলে কোরাম পূর্ণ হয়। সমাজকল্যাণ ইনস্টিটিউটের সর্বশেষ সি এন্ড ডি সভায় ছয়জন সদস্যদের মধ্যে দুইজন উপস্থিত ছিলেন যা তিন ভাগের এক ভাগ। যদিও সিন্ডিকেট থেকে পাশকৃত বিষয়ে সিএনডি সভায় আবার পাশ করার প্রয়োজন নেই, কারণ সিন্ডিকেট হলো চুড়ান্ত সভা। উপযুক্ত প্রার্থী যাচাই-বাছাইয়ের জন্য সি এন ডির সদস্যদের পাঁচ দিন আগে থেকেই বারাবার জানানো হলেও ছয় জনের চারজন উপস্থিত না হয়ে সিএনডি সভা স্থগিত করার জন্য বলেন।



    সি এন্ড ডি ও সিন্ডিকেট সভার সকল ধরনের নিয়ম কানুন কঠোর ভাবে মেনে উক্ত নিয়োগ এর প্রাথমিক কাজ সম্পাদিত হয়েছে যাহার স্বাক্ষর-প্রমাণ ইনস্টিটিউট প্রশাসন এর কাছে রয়েছে। কিন্তু, এই নিয়োগটি বন্ধ করার জন্য জামাতপন্থী একদল শিক্ষক আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তারা বিভিন্ন ভাবে ভুল তথ্য দিয়ে সংবাদমাধ্যমকে বিভ্রান্ত করছে। নিয়োগটি যাতে কোন ভাবেই সম্পূর্ণ না হয় তার জন্য সব মহলে তারা তদবির করছেন। যা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসে ন্যাক্কারজনক ও জঘন্যতম অধ্যায় এবং প্রশাসন এর জন্য অপমানজনক।


    ৪১ জন প্রার্থী এই নিয়োগের জন্য আবেদন করেছেন যাহা বিগত নিয়োগ এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি এবং মৌখিক পরীক্ষার জন্য সকলে চিঠিও পেয়েছেন। চাকুরি প্রার্থীদের কাছে খোঁজ নিয়ে জানা যায় যে, তারা সকলেই সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে এই নিয়োগ শেষ হবে এই প্রত্যাশায় রয়েছেন। দীর্ঘ বছর পর এই নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হওয়ায় তারা সবাই বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রতি কৃতজ্ঞ। একই সাথে এই নিয়োগ যারা বন্ধ করার পায়তারা করছে তাদের প্রতি তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। প্রার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বরাবর এই নিয়োগ যেন সুষ্ঠু হয় তার জন্য আকুল অবেদন জানিয়েছেন।


    • সর্বশেষ
    • সর্বাধিক পঠিত
    শনি
    রোব
    সোম
    মঙ্গল
    বুধ
    বৃহ
    শুক্র

    সম্পাদক: দিদারুল ইসলাম
    প্রকাশক: আজিজুর রহমান মোল্লা
    মোবাইল নাম্বার: 01711121726
    Email: bartajogot24@gmail.com & info@bartajogot24.com