ভূঞাপুরে ফসলি জমি ফেরতের দাবিতে মানববন্ধন

বার্তাজগৎ২৪/কেএইচ
টাঙ্গাইল প্রতিনিধি: টাঙ্গাইল প্রতিনিধি:
প্রকাশিত: ১০:৩৫ অপরাহ্ন, ২১ মে ২০২২ | আপডেট: ৩:১৩ পূর্বাহ্ন, ২৯ জুন ২০২২
বার্তাজগৎ২৪

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে ফসলি জমিতে অবৈধ বালুর ঘাট তৈরি করে বালুর ব্যবসা বন্ধ ও দখলকৃত জমি ফেরতসহ ক্ষতি পূরণের দাবিতে সড়কে মানববন্ধন করেছে ক্ষতিগ্রস্ত ভূমি মালিকরা।

আজ শনিবার (২১ মে) বেলা সাড়ে ১১ টায় উপজেলার বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব-ভূঞাপুর আঞ্চলিক মহাসড়কের পাটিতা পাড়ার সম্পত্তির ও ভূমির মালিকবৃন্দরা ঘণ্টাব্যাপি এই মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে জমি মালিক আকবর হোসেন প্রামানিক বলেন, উপজেলার নিকরাইল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মতিন সরকারসহ তার সহযোগিরা দীর্ঘদিন ধরে ফসলি জমি দখল করে বালু ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে। তার থেকে জমি ফেরত চাওয়ায় আমাদের জমি মালিকদের নানাভাবে হয়রানি ও নির্যাতন করে।

তারা আরও বলেন, সম্প্রতি রমজান মাসে পাটিতাপাড়া নজরুলের বালুঘাটকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। তার কয়েকদিন পরে মতিন সরকারের লোকজন জমি মালিক ফেরদৌসকে মিথ্যা মামলা অভিযোগে মধ্যে রাতে ওরেন্ট ছাড়াই হ্যান্ডক্যাপ পড়িয়ে তুলে নেয়ার চেষ্টাসহ শারীরিক নির্যাতন করে।

আরেক জমির মালিক ফৈরদোস ফকির বলেন, মতিন সরকারের অত্যাচারে ভয়ে দিন কাটাচ্ছে স্থানীয় বাসিন্দারা। বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কোনো পদক্ষেপ নেই।  আমরা এলাকা বাসী পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিচার চাই।

এসময় নিকরাইল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাসুদুল হক মাসুদ বলেন,  ইতিমধ্যে জানতে পেরেছি পাটিতাপাড়া এলাকার জমির মালিকরা মানববন্ধন করেছেন। তাদের জমি দীর্ঘদিন ধরে বেদখলে রয়েছে। সেই বেদখলকৃত নিজস্ব রেকর্ডকৃত সম্পত্তি ফেরত পাওয়া লক্ষ্যে মিডিয়া ও গণমাধ্যমকর্মী উপস্থিততে সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন করেছেন। আমি যতটুকু জানতে পেরেছি আমাদের সাবেক  চেয়ারম্যান মতিন সরকারের লোকজন বিভিন্নভাবে জোর জবরদস্তি করে কোন পাওনা না দিয়ে বালু ব্যবসা করে আসছেন। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী আমাদের ডেকে বলেছেন আমি জমির কাগজ ছাড়া, কাগজের বাহিরে কোন কথা বলতে পারবো না। ইউএনও মহোদয় আরো বলেছেন, আগামী ২৫ মে   আপনারা সবাই উপস্থিত থাকবেন, জমির দলিল অনুযায়ী যার জমি তাকে আমি উপস্থিত থেকে বুঝিয়ে দিবো। এসময় নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ইউএনও মহোদয়ের সহযোগিতা কামনা করেন যেনো জমির মালিকরা তাদের ফসলি জমি আবার ফেরত পায়।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন-  জমির মালিক ফিরোজ ফকির, ইতি খাতুন ও ফেরদৌস-সহ অন্যারা। এসময় মানববন্ধনে ভুক্তভোগীরা সহ এতে বিপুল সংখ্যক মানুষ অংশ নেন।

বার্তাজগৎ২৪/কেএইচ