নাটোরে নববধূসহ ২ জনের মরদেহ উদ্ধার

বার্তাজগৎ২৪/কেএইচ
বার্তাজগৎ২৪ ডেস্ক: বার্তাজগৎ২৪ ডেস্ক:
প্রকাশিত: ৫:০৬ অপরাহ্ন, ২৫ মে ২০২২ | আপডেট: ৪:৩৪ পূর্বাহ্ন, ২৯ জুন ২০২২
বার্তাজগৎ২৪

নাটোরের সিংড়ায় নববধূ ছাড়াও গুরুদাসপুরে এক ভ্যানচালকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ বুধবার (২৫ মে) দুপুরের আগে মরদেহ দুটি ময়না তদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নিহত ওই নারীর নাম আলো খাতুন। তিনি সিংড়া উপজেলার বামিহাল দশোপাড়া গ্রামের আইয়ুব আলীর মেয়ে। তিনি চলতি বছর বামিহাল রহমত ইকবাল অনার্স কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করেন। গত ৪ মে রাজশাহী পুঠিয়ার ঝলমলিয়া গ্রামের এক বিকাশ এজেন্ট ম্যানেজারের সঙ্গে তার বিয়ে দেন বাবা-মা।

অপরদিকে, নিহত ওই ভ্যানচালকের নাম আব্দুর রহিম (৩৭)। তিনি নাজিরপুর ইউনিয়নের নতুনপাড়া গ্রামের সোনা মিয়ার ছেলে।

সিংড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নূর-এ আলম সিদ্দিকী নিহতের পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে গণমাধ্যমকে জানান, ঈদুল ফিতরের পরের দিন (৪ মে) আলো খাতুনের মতামত উপেক্ষা করে রাজশাহী পুঠিয়ার ঝলমলিয়া গ্রামের এক বিকাশ এজেন্ট ম্যানেজারের সঙ্গে বিয়ে দেন তার বাবা-মা। কিন্তু বিয়ে সম্পন্ন হলেও আলো খাতুন তার বাপের বাড়িতেই ছিলেন।

গতকাল মঙ্গলবার (২৪ মে) রাতে তার শয়নকক্ষে আলো খাতুনকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায় পরিবারের লোকজন। খবর পেয়ে বুধবার সকালে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল মতিন সাংবাদিকদের জানান, মঙ্গলবার বিকালে ভ্যান নিয়ে বের হলেও রাতে বাড়ি না ফেরায় বিভিন্নস্থানে তার খোঁজ করতে থাকে স্বজনরা। এক পর্যায়ে নাজিরপুর নতুনপাড়া আবেদ হাজীর ভুট্টার জমিতে মরদেহ দেখতে পান স্থানীয়রা। খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে।

এক প্রশ্নের জবাবে ওসি জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে তাকে কেউ হত্যা করে ওই জমিতে ফেলে গেছে। তদন্তের পরই এ ব্যাপারে বিস্তারিত বলা যাবে।

বার্তাজগৎ২৪/কেএইচ