৫৫ বছর বিধবার ঘর থেকে ইউপি সদস্য হাতে-নাতে ধরা

বার্তাজগৎ২৪/কেএইচ
টাঙ্গাইল প্রতিনিধি: টাঙ্গাইল প্রতিনিধি:
প্রকাশিত: ৩:২০ অপরাহ্ন, ০৩ অগাস্ট ২০২২ | আপডেট: ৮:৩০ অপরাহ্ন, ১১ অগাস্ট ২০২২
বার্তাজগৎ২৪

টাঙ্গাইল সদর উপজেলার দাইন্যা ইউনিয়নের শ্যামার ঘাট এলাকায় ৫৫ বছর বয়সী নারীর ঘর থেকে ছিলিমপুর  ইউনিয়ন পরিষদের ৫ নং ওয়ার্ডের নব-নির্বাচিত ইউপি সদস্য সোহাগ মিয়া(৩৫) কে আটক করে এলাকাবাসী।

আজ বুধবার (৩ আগস্ট) ভোর ৪ টায় সোহাগকে ভুক্তভোগী নারীর ঘর থেকে আটক করা হয়। পরবর্তীতে সোহাগের মামা নুরজালের জিম্মাদারীতে ছেড়ে দেয়া হয়।

এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায়, এখানে সোহাগের মামার বাড়ি হওয়া সূত্রে শ্যামারঘাট এলাকায় যাতায়াত রয়েছে। ভুক্তভোগী নারীর সাথে ইউপি সদস্য সোহাগের দীর্ঘদিনের অনৈতিক সম্পর্ক ছিল। মঙ্গলবার রাত ১২ টায় সোহাগ ভুক্তভোগী নারীর ঘরে প্রবেশ করে এবং ভোর ৪ টা পর্যন্ত অবস্থান করে। এসময় এলাকাবাসী তাদের আটক করে। 

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী নারী জানান, চার বছর আগে আমার স্বামী মারা যায়, এরপর থেকেই সোহাগ বিয়ের প্রলোভনে দীর্ঘদিন যাবৎ আমার সাথে শারীরিক সম্পর্ক চালাচ্ছে। গতকাল রাত ১২ টায় সোহাগ আমার ঘরে আসে, ৪ টা পর্যন্ত অবস্থান করে। পরে এলাকাবাসী আমাদের আটক করে।

এ বিষয়ে নব-নির্বাচিত ইউপি সদস্য সোহাগ জানান, যা করেছি ভুল করেছি। এখন বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা চলছে। সোহাগ মিয়া  চর পাকুল্ল্যা গ্রামের মো. ফজলুল হকের ছেলে।

বার্তাজগৎ২৪/কেএইচ