ইন্দোনেশিয়ায় ৩০ চিকিৎসকের মৃত্যু,চীনা টিকা নিয়ে বিতর্ক

নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:০২ অপরাহ্ন, ০৫ জুলাই ২০২১ | আপডেট: ৯:৩৯ অপরাহ্ন, ১১ অগাস্ট ২০২২

করোনাভাইরাসের নতুন নতুন ভ্যারিয়েন্ট, বিশেষ করে ভারতে প্রথম শনাক্ত ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে বিপর্যস্ত ইন্দোনেশিয়ায় স্বাস্থ্য-কর্মীদের বুস্টার ডোজ দেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। দুই ডোজ টিকা নিয়েও বেশ কয়েকজন স্বাস্থ্য কর্মীর মৃত্যুর পর দেশটি ব্যাপক উদ্বেগ তৈরি হয়েছে।

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত কমপক্ষে ২০ জন চিকিৎসক এবং ১০ জন নার্স কোভিডে ভুগে মারা গেছেন। ইন্দোনেশিয়ার চিকিৎসক ও নার্স সমিতি বলছে, মৃতদের সবারই চীনে তৈরি সিনোভ্যাক টিকা নেওয়া ছিল। ইন্দোনেশিয়ায় এখন যেভাবে বিপজ্জনক মাত্রায় সংক্রমণ এবং মৃত্যু বাড়ছে তাতে অনেক বিশেষজ্ঞ পরামর্শ দিচ্ছেন দ্রুত যেন সমস্ত চিকিৎসক, নার্স এবং অন্য স্বাস্থ্য-কর্মীদের একটি বুস্টার ডোজ অর্থাৎ সিনোভ্যাকের তৃতীয় একটি ডোজ দেওয়া হয়।

ইন্দোনেশিয়ার ২৫ কোটি জনসংখ্যার মধ্যে আট শতাংশেরও কম লোক টিকা পেয়েছে। কিন্তু সম্প্রতি নানা ধরনের করোনাভাইরাস বিশেষ করে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের প্রকোপে সংক্রমণের মাত্রা নাটকীয়ভাবে বেড়ে গেছে। সেইসাথে সন্ত্রস্ত মানুষজন টিকা নেওয়ার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছেন।

জাকার্তার এক শহরতলিতে একটি টিকা কেন্দ্রে গিয়ে বিবিসির প্রতিনিধি দেখতে পান, শত শত মানুষ ভেতরে ঢোকার জন্য মরিয়া হয়ে ঠেলাঠেলি করছে। একজন নিরাপত্তারক্ষী তাদেরকে ধৈর্য ধরে অপেক্ষা করার অনুরোধ করছেন। কারণ ভেতরে কোনও জায়গা নেই।

কেন্দ্রের ভেতর স্থানীয় মেয়র আরিফ উইসমামসিয়া বলার চেষ্টা করলেন, এখনও বহু মানুষের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি রয়েছে। কারণ অনেকেই জানেন না যে টিকা নিতে আসার আগে তাদের রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।

এক সময় বাইরে লাউডস্পিকারে মানুষজনকে বাড়ি ফিরে যেতে বলা হলেও, কেউই নড়ছিলেন না।