শোক দিবসে ছাত্রলীগের কমিটি উল্লাস!

বার্তাজগৎ২৪/ এমএ
নিজস্ব প্রতিবেদক : নিজস্ব প্রতিবেদক :
প্রকাশিত: ২:২৭ পূর্বাহ্ন, ০১ অগাস্ট ২০২২ | আপডেট: ৮:৫৬ অপরাহ্ন, ১১ অগাস্ট ২০২২
বাংলাদেশ ছাত্রলীগ

আজ ১৫ আগস্ট ২০২২ জাতীয় শোক দিবস ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৭তম শাহাদত বার্ষিকী।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ভোররাতে সেনাবাহিনীর কয়েকজন বিপথগামী সদস্য ধানমন্ডির বাসভবনে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করে। ঘাতকরা শুধু বঙ্গবন্ধুকেই হত্যা করেনি, তাদের হাতে একে একে প্রাণ হারিয়েছেন বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব, বঙ্গবন্ধুর জৈষ্ঠ্য সন্তান শেখ কামাল, শেখ জামাল ও শিশু পুত্র শেখ রাসেলসহ পুত্রবধূ সুলতানা কামাল ও রোজি জামাল।

পৃথিবীর এই জঘন্যতম হত্যাকাণ্ড থেকে বাঁচতে পারেননি বঙ্গবন্ধুর অনুজ শেখ নাসের, ভগ্নীপতি আবদুর রব সেরনিয়াবাত, তার ছেলে আরিফ, মেয়ে বেবি ও সুকান্তবাবু, বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক শেখ ফজলুল হক মনি, তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী আরজু মনি এবং আবদুল নাঈম খান রিন্টু ও কর্নেল জামিলসহ পরিবারের ১৬ জন সদস্য ও ঘনিষ্ঠজন। সেসময় বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা বিদেশে থাকায় প্রাণে রক্ষা পান।

আজ ১২.১৭ মিনিটে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য সাক্ষরিত চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের পূর্নাঙ্গ কমিটি প্রকাশ করা হয়। এর আগে ঝিনাইদহ জেলা, নরসিংদী জেলা, লক্ষীপুর জেলা, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, চট্রগ্রাম উত্তর জেলা ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন দেয়া হয়।

শোকের মাসে এভাবে উল্লাসের মত কমিটি প্রকাশ করাকে নেটিজেনরা নেতিবাচক চোখে দেখছে।

ছাত্রলীগের সাবেক নেতা কামরুল হাসান খোকন তার ব্যক্তিগত ফেসবুকে লিখেন, এক অ্যাডভোকেটের বাসায় কত্তগুলা কমিটি !!

শোকের মাস শুরুর ঘন্টা দু’য়েক আগে জেলা কমিটি ফেসবুকে দেয়ার মহোৎসব নাকি নির্মম রসিকতা।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সোহান খান লিখেন, আগস্টের শোক তাদের স্পর্শ করেনি.... যেন চাঁদরাত চলছে..।

ছাত্রলীগের সাবেক এক নেতা বলেন, কমিটি তো টাকার মাধ্যমে হচ্ছে সব যা শুনতাছি। তাই বলে শোক দিবসে এমন উল্লাস কাম্য নয়। তারা তো শোভন-রাব্বানীর চেয়ে বড় অপরাধী। জাতির পিতার হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সেই সংগঠন যদি জন্মদাতার শোকে কাতর না হয়ে উল্লাসে মেতে উঠে তাহলে নীতিনির্ধারকদের নতুন করে ভাববার সময় এসেছে বলে আমি মনে করি।

বার্তাজগৎ২৪/ এমএ